রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪ | ৯ আষাঢ় ১৪৩১
Dhaka Prokash

যেভাবে বুয়েট থেকে টেসলায় যোগ দিলেন রিফাত

হাসান এম রিফাত। ছবি: সংগৃহীত

প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ও বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী হিসেবে পরিচিত ইলন মাস্ক, যিনি বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি করে জনপ্রিয় হওয়া টেসলা মোটরসের প্রতিষ্ঠাতা। কয়েকবছর আগেও গুগল, মাইক্রোসফট, ইন্টেল, ফেসবুক, অ্যামাজন বা টেসলার মতো প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ পাওয়া বাংলাদেশের তরুণদের কাছে অকল্পনীয় ছিল। তবে সেই দূরত্ব ঘুচে গেছে।

এখন প্রতিবছরই অনেক তরুণ যোগ দিচ্ছেন এসব প্রতিষ্ঠানে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান টেসলায় গিগাফ্যাক্টরি-১-এ ‘সিনিয়র ফ্যাসিলিটিজ ওয়াটার ইঞ্জিনিয়ার’ হিসেবে যোগ দিয়েছেন বুয়েটের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী হাসান এম রিফাত।

হাসান এম রিফাত

 

রিফাতের বেড়ে উঠা ময়মনসিংহ শহরে। বাবা সরকারি চাকরিজীবী, মায়ের কাছেই পড়াশোনার হাতেখড়ি। শহরের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে ২০০৮ সালে ভর্তি হন বুয়েটে। একাডেমিক পড়াশোনায় ল্যাবের এক্সপেরিমেন্ট ক্লাস ও কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে দারুণ আগ্রহ পেতেন রিফাত। তখন থেকেই স্বপ্ন দেখেন উচ্চশিক্ষায় মার্কিন মুলুকে পাড়ি জমানোর।

বুয়েট থেকে গ্র্যাজুয়েশনের পর চাকরি শুরু করেন বেক্সিমকো গ্রুপে। এর কিছুদিন পর পিডিবির অধীন খুলনার খালিশপুর পাওয়ার প্লান্টে যোগদান করেন রিফাত। এর মাঝেই কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং মাস্টার্স প্রগ্রামে যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও ইউনিভার্সিটিতে স্কলারশিপ পেলেন। যাত্রা শুরু হলো নতুন দিগন্তে। ওহাইও ইউনিভার্সিটিতে পড়াকালীন সময়ে তিনি বিশ্ববিখ্যাত ইভি ম্যানুফ্যাকচারিং প্রতিষ্ঠান টেসলা গিগাফ্যাক্টরি-১-এ ‘সিনিয়র ফ্যাসিলিটিজ ওয়াটার ইঞ্জিনিয়ার’ পদে আবেদন করেন।

আবেদনের কিছুদিন পর নিয়োগকারীর সঙ্গে ফোনে ইন্টারভিউর জন্য ই-মেইল আসে। দুই ধাপে ইন্টারভিউর পর প্রতিষ্ঠান জানায়, রিফাত প্যানেল ইন্টারভিউর জন্য নির্বাচিত হয়েছে। রিফাতের প্যানেল ইন্টারভিউয়ে ছয়-সাতজন ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজার ও সিনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। শুরু হয় একটি টেকনিক্যাল সমস্যার ওপর প্রেজেন্টেশন দিয়ে। এরপর সব প্যানেল ইন্টারভিউয়ারের সঙ্গে ওয়ান অন ওয়ান ইন্টারভিউ হয়। সেখানে মূলত টেকনিক্যাল প্রশ্ন করা হয়। এতে তার অভিজ্ঞতা ও বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং সমস্যা যেমন– সমস্যা সমাধানের মূল কারণ, বিশ্লেষণসহ টেকনিক্যাল সমস্যা দেখিয়ে প্রশ্ন করা হয়।

এরপর রিফাতকে টেসলা গিগাফ্যাক্টরি-১-এর ইনফ্রাস্ট্রাকচার টিমের ডিরেক্টরের সঙ্গে ৩০ মিনিটের একটি ব্রিফ ফোনকলে অ্যাটেন্ড করতে হয়। এর সপ্তাহখানেক পর প্রতিষ্ঠান থেকে ফোনে জানানো হয়– ‘অভিনন্দন’। এরপর ইলন মাস্ক স্বাক্ষরিত অফার লেটার আসে রিফাতের হাতে।

দেশের তরুণদেরকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেন রিফাত। দেশের বাইরে পড়াশোনা করতে চাওয়া তরুণদের জন্য কাজ করতে চান তিনি।

Header Ad

আজ সোনাক্ষী সিনহার বিয়ে

সোনাক্ষী সিনহা ও জাহির ইকবাল। ছবি: সংগৃহীত

বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা। তার বিয়ে নিয়ে বলিউডে উৎসব চলছে। গত শুক্রবার মেহেদি সন্ধ্যার মধ্য দিয়ে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। আজ রবিবার (২৩ জুন) পাত্র জাহির ইকবালের বাড়িতে রেজিস্ট্রির মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন হবে।

শত্রুঘ্ন সিনহার ঘনিষ্ঠ বন্ধু শশী রঞ্জন। সোনাক্ষীর বিয়ে নিয়ে তিনি ভারতীয় গণমাধ্যমে জানান, সোনাক্ষী তার ভালোবাসার মানুষকে বিয়ে করছেন। এটি অতি আনন্দের সংবাদ। এরই মধ্যে বিয়েতে যোগ দিতে অতিথিরা ছেলের বাড়িতে চলে এসেছেন। শত্রুঘ্ন সিনহাও এসেছেন। এটা আমাদের জন্য খুবই আনন্দের মুহূর্ত। এখানেই রেজিস্ট্রির মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন হবে।

এর আগে সোনাক্ষীর মেহেদি সন্ধ্যার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সোনাক্ষী সিনহা ও জাহির ইকবাল দীর্ঘসময় ধরে প্রেমের সম্পর্কে আছেন। তবে কখনোই মিডিয়ার সামনে নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে মুখ খোলেননি দুজনের কেউই। সোনাক্ষী ও জাহির ২০২২ সালে একসঙ্গে ‘ডাবল এক্সএল’ শিরোনামে একটি সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। তবে এর আগে থেকেই দুজনের মধ্যে সম্পর্ক ছিল। এবার বিয়ের মাধ্যমে নতুন জীবন শুরু করতে যাচ্ছেন তারা।

বলিউডের এই দুই তারকার বিয়ে ঘিরে এরই মধ্যে জাহিরের বাড়িতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তবে বিয়েতে সোনাক্ষীর পোশাক কী হবে, সে বিষয়ে এখনো কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

প্রসঙ্গত, সাত বছর ধরে প্রেম করছেন সোনাক্ষী সিনহা ও জাহির ইকবাল। ২০২২ সালে ‘ডাবল এক্সএল’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন সোনাক্ষী ও জাহির। সালমান খানের এক পার্টিতে কাছাকাছি আসেন তারা। কাকতালীয়ভাবে সালমানের হাত ধরেই দুজনেই বলিউডে পা রাখেন।

দায়িত্ব নিলেন নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান

জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান। ছবি: সংগৃহীত

সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান। এর মাধ্যমে তিনি সদ্য বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

রবিবার (২৩ জুন) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। আগামী তিন বছরের জন্য তিনি সেনাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করবেন।

নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামানের শ্বশুর মুস্তাফিজুর রহমানও একসময় সেনাবাহিনীর নেতৃত্ব দিয়েছেন। ১৯৯৭-২০০০ মেয়াদে বাংলাদেশের সেনাপ্রধান ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান।

শেরপুরের সন্তান ওয়াকার-উজ-জামান ১৯৮৫ সালের ২০ ডিসেম্বর ত্রয়োদশ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পদাতিক কোরে কমিশন পান। দীর্ঘ ৩৯ বছরের সামরিক জীবনে তিনি একটি পদাতিক ব্যাটালিয়ন, একটি পদাতিক ব্রিগেড এবং পদাতিক ডিভিশনের নেতৃত্ব দিয়েছেন। স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস এবং সেনা সদর দপ্তরে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

চলতি বছরের শুরুতে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের (পিএসও) দায়িত্ব থেকে চিফ অফ জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) করা হয় ওয়াকার-উজ-জামানকে। তার আগে ২০২০ সালের নভেম্বরে মেজর জেনারেল থেকে পদোন্নতি পেয়ে লেফটেন্যান্ট জেনারেল হন। তখনই তাকে সেনা সদর দপ্তরের সামরিক সচিবের দায়িত্ব থেকে পিএসও করা হয়।

ওয়াকার-উজ-জামান সেনা সদর দপ্তরের সামরিক সচিবের দায়িত্ব পান ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে। তার আগে তিনি নবম পদাতিক ডিভিশনের নেতৃত্বে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারও ছিলেন এক সময়। অ্যাঙ্গোলা ও লাইবেরিয়ায় জাতিসংঘ শান্তি মিশনে সিনিয়র অপারেশন অফিসার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন এই সেনা কর্মকর্তা।

সেনাবাহিনীর ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে কমিশন পাওয়া ওয়াকার-উজ-জামান মিরপুরের ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ এবং যুক্তরাজ্যের জয়েন্ট সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন করেন। পরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স অব ডিফেন্স স্টাডিজ এবং যুক্তরাজ্যের কিংস কলেজ থেকে মাস্টার্স অব আর্টস ইন ডিফেন্স স্টাডিজ ডিগ্রি পান।

২০০৯ সালে ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের অধিনায়ক থাকাকালে বিডিআর বিদ্রোহ দমনে তার ভূমিকা প্রশংসিত হয়। ২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে টানা তিন বছর বিজয় দিবস প্যারেডের প্যারেড কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করে তিনি ‘সেনাগৌরব পদক’ পান। এছাড়া সেনাবাহিনীতে কৃতিত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য পান ‘অসামান্য সেবা পদক’। ওয়াকার-উজ-জামান এবং তার স্ত্রী বেগম সারাহনাজ কমলিকা দুই মেয়ের বাবা-মা।

১৪ জেলায় নতুন এসপি নিয়োগ

ছবি: সংগৃহীত

১৪ জেলার পুলিশ সুপারকে (এসপি) বদলি করা হয়েছে। রবিবার (২৩ জুন) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ-১ শাখা থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে তাদের বদলি করা হয়।

জেলাগুলো হলো- রংপুর, কুষ্টিয়া, সিলেট, কুমিল্লা, পটুয়াখালী, বরগুনা, বগুড়া, ফেনী, পাবনা, টাঙ্গাইল, নীলফামারী, যশোর, মাদারীপুর ও সুনামগঞ্জ।

বদলি কর্মকর্তাদের মধ্যে- ডিএমপির ডিসি মোহাম্মদ শাহজাহানকে রংপুরের পুলিশ সুপার (এসপি), ডিএমপির ডিসি মুহাম্মদ আলমগীর হোসেনকে কুষ্টিয়া, কুমিল্লার এসপি আব্দুল মান্নানকে সিলেটে, সিলেটের এসপি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ডিএমপির ডিসি, পটুয়াখালীর এসপি মো. সাইদুল ইসলামকে কুমিল্লা, বরগুনার এসপি মো. আবদুস ছালামকে পটুয়াখালী, বরগুনার পুলিশ সুপার মো. আবদুস ছালামকে পটুয়াখালী, পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মো. রাফিউল আলমকে বরগুনা, ফেনীর এসপি জাকির হাসানকে বগুড়ায় পদায়ন করা হয়েছে।

এছাড়া ডিএমপির ডিবির ডিসি মো. আ. আহাদকে পাবনা, নীলফামারীর এসপি মো. গোলাম সবুরকে টাঙ্গাইল, পিবিআইয়ের এসপি মো. মোকবুল হোসেনকে নীলফামারী, মাদারীপুরের এসপি মাসুদ আলমকে যশোর, এসবির পুলিশ সুপার মো. শফিউর রহমানকে মাদারীপুর, পুলিশ সদরদপ্তরের এম এন মোর্শেদকে সুনামগঞ্জের এসপি হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

আজ সোনাক্ষী সিনহার বিয়ে
দায়িত্ব নিলেন নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান
১৪ জেলায় নতুন এসপি নিয়োগ
সময় নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুদকে হাজির হননি বেনজীর
আইনের ভিত্তিতে খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর অনুমতি নেই: আইনমন্ত্রী
রক্তাক্ত ফিলিস্তিনিকে জিপের সামনে বেঁধে নিয়ে গেল ইসরায়েলি বাহিনী
বর্ণচোরা বিএনপি আমাদের চলার পথে প্রধান বাধা: ওবায়দুল কাদের
৩টা জিতেছি, ৩টা হেরেছি, খুব একটা খারাপ নয়: সাকিব
ছাগলকাণ্ডে এনবিআর কর্মকর্তা মতিউরকে ওএসডি করা হয়েছে
একাদশে ভর্তিতে প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ আজ
আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কার্যকলাপ, ২০ নারী-পুরুষ আটক
সিভিল এভিয়েশনের গলার কাঁটা হোটেল শেরাটন, বিমান চলাচলে ঝুঁকি!
রোনালদোর রেকর্ডের রাতে তুরস্ককে উড়িয়ে দিয়ে নকআউটে পর্তুগাল
অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল আফগানিস্তান
আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা
গাজায় ইসরায়েলি হামলা, নিহত আরও শতাধিক
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ঘিরে বন্ধ থাকবে যেসব সড়ক
ভারতের কাছে হেরে সেমিফাইনালের স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের
আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ
কেটে ফেলা হলো গোপালগঞ্জের সেই কথা বলা আলোচিত গাছ