বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ | ৬ আষাঢ় ১৪৩১
Dhaka Prokash

২০২১-২২ সালের 'শিল্পকলা পদক' পাচ্ছেন যারা

ছবি সংগৃহীত

শিল্প-সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদানের জন্য ২০২১ ও ২০২২ সালের জন্য ‘শিল্পকলা পদক’ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। ২০২১ ও ২০২২ সালের জন্য ১৯ গুণীজন ও একটি প্রতিষ্ঠানকে এই পদক দেওয়া হবে। নীতিমালা অনুযায়ী, ১৬ সদস্যের কমিটি প্রতি বছর পদকের জন্য গুণীজন নির্বাচন করে থাকেন।

সম্মাননা হিসেবে পদকপ্রাপ্ত প্রত্যেকেই পাবেন একটি করে স্বর্ণপদক, সনদপত্র এবং এক লাখ টাকার চেক।

পদক প্রসঙ্গে একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী বলেছেন, ‘বিনম্র শ্রদ্ধা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে, যিনি শিল্পের মহান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করার স্বপ্নযাত্রায় শিল্প-সংস্কৃতির চর্চা, প্রসার ও বিকাশকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন; অনুপ্রাণিত করে চলেছেন দেশের শিল্পী, সাহিত্যিক এবং সংস্কৃতিসেবীদের। আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি বাংলাদেশকে বিশ্বের একটি অন্যতম আলোকিত ও সৃজনশীল দেশে পরিণত করতে অনন্য ভূমিকা পালন করবে। আমি পদকপ্রাপ্ত গুণী শিল্পীদের শ্রদ্ধা জানাই। সকলের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা।

২০২১ ও ২০২২ অর্থ বছরে যে সকল শিল্পীরা শিল্পকলা পদক পাচ্ছেন:

২০২১ সালের শিল্পকলা পদক পাচ্ছেন-

১. যন্ত্রসঙ্গীত- জনাব মো: নূরুজ্জামান
২. নৃত্যকলা- জনাব শারমীন হোসেন
৩. কণ্ঠসংগীত- জনাব সাদি মহম্মদ
৪. চারুকলা- শিল্পী বীরেন সোম
৫. নাট্যকলা- অধ্যাপক আবদুস সেলিম
৬. লোকসংস্কৃতি - জনাব মো: নহীর উদ্দিন
৭. চলচ্চিত্র- ড. মতিন রহমান
৮. আবৃত্তি - কাজী মদিনা
৯. যাত্রাশিল্পী - জনাব এম. এ. মজিদ
১০. সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠন/সংগঠক- জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ

২০২২ সালে শিল্পকলা পদক পাচ্ছেন-

১. যন্ত্রসঙ্গীত- জনাব ফোয়াদ নাসের
২. নৃত্যকলা- জনাব সাজু আহম্মেদ
৩. কণ্ঠসংগীত- জনাব এলেন মল্লিক
৪. চারুকলা- অধ্যাপক অলক রায়
৫. নাট্যকলা- জনাব খায়রুল আলম সবুজ
৬. লোকসংস্কৃতি - জনাব সুনীল কর্মকার
৭. ফটোগ্রাফি- জনাব রফিকুল ইসলাম
৮. আবৃত্তি- মীর বরকতে রহমান
৯. যাত্রাশিল্পী- জনাব অরুণা বিশ্বাস
১০. সৃজনশীল সাংস্কৃতিক গবেষক- ড. সফিউদ্দিন আহমদ।

জানা গেছে, খুব শিগগিরই রাষ্ট্রপতির অনুমতি ও তারিখ নির্ধারণ সাপেক্ষে ‘শিল্পকলা পদক’ প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।

Header Ad

ইতোমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে

যমুনা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙন আতঙ্কে নদীপাড়ের মানুষ

বসতভিটা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। ছবি: ঢাকাপ্রকাশ

উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে পানি বাড়ছে। একইসঙ্গে শুরু হয়েছে নদীর পাড় ভাঙন। বিগত ভাঙনের পর যেটুকু সম্বল বেঁচে ছিল, সেটিও ভাঙনের আশঙ্কায় চরম হতাশায় দিন পার করছেন নদীপাড়ের শতশত ভাঙন কবলিত মানুষ। ইতোমধ্যে কিছু কিছু এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের এলাকায় ঘুরে দেখা যায়- চিতুলিয়াপাড়া, ভালকুটিয়া, কষ্টাপাড়া ও নিকরাইল ইউনিয়নের মাটিকাটা, পাটিতাপাড়া, কোনাবাড়ী এলাকাসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় কয়েক দিন ধরে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ফলে দিশেহারা নদীপাড়ের মানুষগুলো।

নদীপাড়ের মানুষের অভিযোগ, গেল বছর ভাঙনরোধে খানুরবাড়ী, চিতুলিয়াপাড়াসহ বিভিন্নস্থানে নামমাত্র নিম্নমানের জিও ব্যাগ ফেলে জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড। সেগুলো এখন ধসে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এছাড়া প্রভাবশালী ব্যক্তিরা প্রভাব খাটিয়ে নিজ নিজ বাড়ির সামনে জিওব্যাগ ফেলে। দরিদ্র পরিবারের বাড়ির সামনে জিওব্যাগ ফেলা হয় না।

বসতভিটা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। ছবি: ঢাকাপ্রকাশ

গত বছর ভাঙনের শিকার একাধিক ব্যক্তিরা বলেন- শুকনো মৌসুমে বালু ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে নদীতে জেগে ওঠা চর কেটে ট্রাকযোগে বিক্রি করে। এতে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে নতুন নতুন এলাকায় ভাঙন দেখা দেয়। বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা যায় না। যার কারণে নদীতে পানি আসলে ব্যাপক ভাঙন দেখা দেয়।

গত বছর বন্যায় ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ফেলা গাইড বাঁধের জিওব্যাগ আনলোড ড্রেজারগুলোর কারণে ধসে যাচ্ছে। যার ফলে কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত পাকা ও আধ-পাকা সড়ক, গাইড বাঁধ বসত-বাড়ি, মসজিদ-মন্দির, ছোট-বড় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানা স্থাপনা ভাঙনের হুমকিতে রয়েছে।

পাটিতাপাড়ার ওমেছা, সুফিয়া ও কোরবান আলী বলেন- যমুনা নদীতে গত কয়েকদিন ধরে পানি বাড়ছে। এতে পানি বৃদ্ধির সঙ্গে ভাঙনও দেখা দিয়েছে। কিন্তু ভাঙনরোধে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। গত বছর বসতভিটা ভেঙে যেটুকু থাকার জায়গা ছিল সেটি এবারও চোখের সামনে নদী গর্ভে বিলীনের পথে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মামুনুর রশীদ বলেন- কিছুদিন ধরে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধি শুরু হয়েছে। কিন্তু ভাঙনের বিষয়টি আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। ভাঙনরোধে ঊর্ধ্বতন দপ্তরে অবগত করাসহ জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে কথা বলব এবং ভাঙনরোধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

টাঙ্গাইল জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন- ভূঞাপুরে ভাঙনের বিষয়টি ইউএনও’র মাধ্যমে জানতে পারলাম। ভাঙন এলাকাগুলোর মধ্যে গোবিন্দাসী ও নিকরাইলের জন্য একটি প্রকল্প জমা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওই এলাকার ইকোনমিক জোনের কাজ শুরু হলে স্থায়ী বাঁধ হয়ে যাবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল

ছবি: সংগৃহীত

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এবারের গ্রীষ্মের ছুটি কমানো হয়েছে। আগামী ২ জুলাই পর্যন্ত এই ছুটি থাকার কথা ছিল। এখন নতুন সিদ্ধান্ত হলো বুধবার (২৬ জুন) থেকে খুলে দেওয়া হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তবে শুক্রবারের পাশাপাশি শনিবারও সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

শিক্ষাপঞ্জি অনুসারে, এবার পবিত্র ঈদুল আজহা ও গ্রীষ্মকালীন ছুটি শুরু হয়েছে ১৩ জুন, যা চলার কথা ২ জুলাই পর্যন্ত। ছুটি সংক্ষিপ্ত করার পরিকল্পনার কারণ হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুক্তি হলো, পাঠদানের কর্মদিবস সারা বছরব্যাপী কমেছে।

এ ছাড়া শনিবারের বন্ধ পুনর্বহাল রাখার কারণে কর্মদিবস কমে যাবে। তাই গ্রীষ্মের ছুটির এক সপ্তাহ কমানোর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫

প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

ভারতে বিষাক্ত মদপানে ৩৭ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া চেন্নাই থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরবর্তী কল্লাকুরিচি জেলায় গত কয়েকদিন ধরে বিষাক্ত মদপানে আরও কমপক্ষে ৫৫ জন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির।

মদপানে অসুস্থ হয়ে পড়া এবং মৃত্যু হওয়াদের অধিকাংশই কারুনাপুরাম এলাকার। এক নারী জানান, বিষাক্ত মদপানে তার ছেলের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বলেন, তার ছেলের প্রচণ্ড পেটে ব্যথা করছিল এবং সে চোখ খুলতে পারছিল না। মদপানে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে হাসপাতালেও ভর্তি করা যায়নি।

অন্য এক মা জানান, তার ছেলের প্রচণ্ড পেটে ব্যথা। সে কিছু দেখতেও পারছে না আর কিছু শুনতেও পাচ্ছে না। তিনি বলেন, এমনটা কারও সঙ্গে যেন না হয়। এ ধরনের বিষাক্ত মদ বিক্রি বন্ধ হওয়া উচিত। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিকে বৃহস্পতিবার কল্লাকুরিচির জেলা প্রশাসক এমএস প্রশান্ত বলেন, অসুস্থদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য কাছাকাছি সরকারি মেডিক্যাল কলেজের বিশেষজ্ঞসহ পর্যাপ্ত চিকিৎসাকর্মীদের জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে।

এই ঘটনার এর জের ধরে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। বিষাক্ত মদপানে একসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যু ও অসুস্থতা ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় ও গাফিলতির অভিযোগে কল্লাকুরচির জেলা প্রশাসককে বদলি করা হয়েছে। এছাড়া জেলার পুলিশ সুপারসহ একাধিক কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ২৬ জনের পান করা দেশি মদের প্যাকেট থেকে নমুনা নিয়ে ফরেনসিক রিপোর্টের জন্য পাঠানো হয়েছে এবং সেখানে বিষাক্ত মিথানলের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

যমুনা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙন আতঙ্কে নদীপাড়ের মানুষ
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল
বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫
শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল
বিয়ের আসরে স্ত্রীর দাবি নিয়ে হাজির বরের খালাতো বোন
সুপার এইটে আসতে পেরে খুশি, এখন যা হবে বোনাস: হাথুরুসিংহে
বিএনপি ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক তৈরি করে দেশের ক্ষতি করেছিল: ওবায়দুল কাদের
যাত্রাবাড়ীতে বাসায় ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা
নওগাঁয় ঈদের আগে ও পরে সড়কে ঝরে গেল ৫ প্রাণ
বিশ্ব শরণার্থী দিবস আজ
মিয়ানমার থেকে গুলিবর্ষণের ঘটনা জাতিসংঘে উত্থাপন
ক্যারিবীয়দের গুঁড়িয়ে দিয়ে সুপার এইটে শুভসূচনা ইংল্যান্ডের
৩ বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস
পালিয়ে মায়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা, সাততলার কার্নিশে আটকে গেল কিশোরী
প্রেমিকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ‘বিশেষ অঙ্গ’ হারালেন দুই বন্ধু
১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনা ইফাত আমার ছেলে নয়: রাজস্ব কর্মকর্তা
ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে কর্মচারীদের মানববন্ধন
সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, পানিবন্দি ৭ লাখ মানুষ
ফুটপাথে ঘুমন্ত যুবককে বিএমডব্লিউ দিয়ে পিষে দিলেন এমপিকন্যা!
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সূচি প্রকাশ, প্রথম দিনে মাঠে নামছে ম্যানইউ